বগুড়ায় ভাগ্নেকে মারপিট করার প্রতিবাদ করতে গিয়ে মামা খুন

অপরাধ

মোঃ রাকিব মাহমুদ ( ডাবলু) :
বগুড়া শহরে ভাগ্নেকে মারপিটের প্রতিবাদ করতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে মামা খুন হয়েছে। নিহত রশিদুল (৩৩) শহরের রহমান নগর এলাকা মৃত জাহেদুল ইসলাম লালুর ছেলে। মঙ্গলবার দুপুর ২ টার দিকে শহরের রহমান নগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এসময় তার ভগ্নিপতি বছির ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন। ছুরিকাঘাতে গুরুত্বর আহত রশিদুলকে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেলা সাড়ে ৩ টার দিকে সে মারা যায়।

রশিদুল শহরের জলেশ্বরীতলা এলাকায় জব্বার ক্লাব মোড়ে ফ্লেক্সিলোড ব্যবসায়ী ছিলেন। তিনি একাধিক সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন।বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী দৈনিক শ্রমিককে- জানান,রশিদুলের ভাগ্নে শান্ত’র সাথে আশিকের তুচ্ছ বিষয় নিয়ে সিয়াম ও সামাইন শান্তকে মারপিট করে। তার ভাগ্নেকে মারধর করার বিষয়ে সিয়াম ও সামাইনের সাথে রশিদুল কথা বলছিলেন। সেখানে শান্তর বাবা বছিরও আসেন।

সেখানে কথাবার্তার এক পর্যায়ে বাকবিতন্ডাকালে দুই কিশোর রশিদুল কে ছুরিকাঘাত করে।

এসময় তারা বছিরকেও ছুরিকাঘাত করে। স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে দুইজনকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেল সাড়ে ৩ টায় রশিদুল মারা যান।বগুড়া পৌরসভার ১০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আরিফুর রহমান আরিফ জানান, নিহত রশিদুল এলাকায় কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সদস্য ছিলেন, এছাড়া সামাজিক কর্মকান্ডে জড়িত ছিলেন।এলাকায় পুরুষ কেউ মারা গেলে মরদেহ গোসল করানোর জন্য ডাক পরতো রশিদুলের।

এছাড়াও করোনাকালে তিনি স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে করোনায় কেউ মারা গেলে মরদেহ দাফন করার দায়িত্ব নিতেন। ভাগ্নেকে মারধরের প্রতিবাদ করার কারনেই প্রান দিতে হল তাকে।প্রশাসন সুএে জানা যায়, ঘটনায় জড়িতদের সনাক্ত করা হয়েছে। ঘটনার পর পরই পুলিশের একাধিক টিম জড়িতদের গ্রেফতার করতে মাঠে নেমেছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।