বগুড়ায় আবাসিক হোটেল থেকে অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে ১৭ জন নারী পুরুষকে আটক

অপরাধ

মুহাম্মদ মতিন খন্দকার টিটু :
বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে নুরজাহান প্লাজায় আবাসিক বোডিং থেকে অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িত থাকার অপরাধে ১৭জন নারী পুরুষকে আটক করেছে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ। আজ (৪ এপ্রিল) রোজঃ রবিবার দুপুর ১২:০০ ঘটিকার সময় উপজেলার মহাস্থান বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় শিবগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী অফিসার আলমগী কবীরের নেতৃত্বে ও শিবগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইসলামের সহযোগিতায় নুরজাহান প্লাজায় আবাসির হোটেল থেকে ৭ জন নারী ও ১০ জন পুরুষকে আটক করে।
স্থানীয় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কিছু ব্যক্তি জানান, তারা নিজেদের প্রেমিক-প্রেমিকা নিয়ে সময় কাটাতো এখানের বোর্ডিংগুলোতে আসে। আবার তরাও যৌনকর্মি নিয়ে অবাধে যৌন ব্যবসা চলায়। এখানে উঠতি বয়সের তরুন যুবকরা আসছে। আবার স্থানীয় স্কুল- কলেজের মেয়েরাও বিভিন্ন ফাঁদে পড়ে এমনকি স্বেচ্ছায় বাড়তি টাকা উপার্জনের আশায় আসছে। আজকের এমন অভিযানকে তারা স্বাগত জানিয়ে প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ রেখে বলেন, ভবিস্যতেও এমন অভিযান অব্যাহত রাখার কথা। শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: সিরাজুল ইসরাম জানান, শিবগঞ্জ উপজেলার আবাসিক হোটেলগুলোতে অসামাজিক কার্যকলাপ চলছে এমন সংবাদ পেয়ে নুরজানান আবাসিক বোডিং অভিযান পরিচালনা করি। এ সময় অসামাজিক কার্যকালাপের সঙ্গে জড়িত হোটেল নূর জাহানের ম্যানেজার আলমগীর কবির (৪০), তার দুই সহযোগী আমিনুল ইসলাম (২৮) ও আরিফুল ইসলাম (২৬) এবং ৭ নারী ও ৭ পুরুষকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে প্রেরণ করা হয়। অপকর্ম রোধে এই তৎপরতা অব্যাহত থাকবে। শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলমগীর কবীর জানান, নূর জাহান আবাসিক হোটেলে অনৈতিক কর্মকান্ড চলে আসছিল। এর আগে হোটেলের ম্যানেজার মুচলেকা দিলেও কথা রাখেননি। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হোটের ম্যানেজারকে ৬ মাসের, তার দুই সহযোগীকে ১ মাসের এবং অনৈতিক কাজে লিপ্ত শাহীন মিয়া(২৭), সানিমুল্লাহ(৩০) ও রিমি খাতুন(৩০) কে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। এছাড়া বাকি ১০জনকে ২০০ টাকা জরিমানাসহ মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।