কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম জয়মঙ্গলপুর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতাও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান

খেলা

চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধি :
ভাষার মাসের শেষদিন ও মুজিব বর্ষের সন্ধিক্ষণে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার ১নং কাশিনগর ইউনিয়নের জয়মঙ্গলপুর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতাও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান।উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপতি আলহাজ্ব মোখলেছুর রহমান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন-গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক সফল রেলপথমন্ত্রী ও বর্তমান সাংসদ-বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মুজিবুল হক মুজিব এমপি।অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্হিত ছিলেন-বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট এর বিশিষ্ট আইনজীবী ও সাবেক রেলপথমন্ত্রীর সহধর্মিণী এ্যাডভোকেট হনুফা আক্তার রিক্তা।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন-চৌদ্দগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট শিল্পপতি আবদুস সোবহান ভুইয়া হাছান,পৌর মেয়র মিজানুর রহমান,কুমিল্লা জেলার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান ও চৌদ্দগ্রাম উপজেলা যুবলীগের সংগ্রামী আহবায়ক-মোঃ শাহজালাল মজুমদার,উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান এবিএমএ বাহার,কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেন রুবেল,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রহমত উল্লাহ বাবুল,স্হানীয় ইউনিয়ন কাশিনগর এর সুযোগ্য চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন,জেলা পরিষদের সদস্য ভিপি ফারুক আহম্মেদ মিয়াজী,৬নং ঘোলপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী জাফর আহম্মেদ সহ উপজেলার সকল ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দ।অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন-এই জয়মঙ্গলপুর এলাকা একটা সময় অবহেলিত ছিল,তখন পাকা সড়ক তো দূরের কথা একটি ইটাও গ্রামের মানুষ চোখে দেখেনি।আর ঐ মুহুর্তে বিএনপি জামায়াতের নেতা তাহের ও জাতীয় পার্টির কাজী জাফরের মতো নেতাই ক্ষমতায় ছিল।তাদের কাছে সাধারণ মানুষের চাওয়া পাওয়া সবই যেন ছেলেখেলা ছিল।বিধেই তারা বরাবরই জনগণের কাছে প্রতারকের পরিচয় দিয়েছে।কিন্তু আমি কৃষকের সন্তান মুজিবুল হক মুজিব জনগণের সাথে কখনো বেইমানী করিনি,করবোও না।যতকাল আমার নেত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকবে-ততকাল শুধু চৌদ্দগ্রাম নয়,সমগ্র বাংলাদেশ বিশ্বের দরবারে উন্নত দেশ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েই যাবে।পরে সাবেক এই মন্ত্রী জয়মঙ্গলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে বহুতল ভবন নির্মাণ করে দেবেন বলেও সংশ্লিষ্টদের প্রতিশ্রুতি দেন।এরপূর্বে তিনি ও তাহার সহধর্মিণী জয়মঙ্গলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্হাপনের শুভ উদ্বোধন করেন।সবশেষে-তাঁহার সহধর্মিণী এ্যাডভোকেট হনুফা আক্তার রিক্তা চৌদ্দগ্রাম উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক- কাজী আল রাফির শুভ বিবাহোত্তর অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।